চার পথে আয়ের পথ দেখালেন রবার্ট টি কিয়োসাকি

আয়ের পথ

বিখ্যাত অর্থনীতির মোটিভেশনাল লেখক ও বিনিয়োগকারী রবার্ট টি কিয়োসাকি চারটি আয়ের পথ দেখিয়েছেন। যারা বেকার আছেন তারা চারভাবে আয়ের পথ বেছে নিতে পারেন। যার যার যোগ্যাতা অনুযায়ী এর যে কোনো একটি পথ বেছে নিতে তিনি তার দ্য বিজনেস স্কুল বইয়ে পরামর্শ দিয়েছেন। লেখক রবার্ট টি কিয়োসাকি এই চার পথের আয়ের জন্য ESBI ফর্মূলা ব্যবহার করেছেন। ESBI মূলত আয়ের উৎসের আদি অক্ষরসমূহ

বিস্তারিত...

ফার্স্ট লেডি কী, তারা কী বেতন পান?

ফার্স্ট লেডি

ফার্স্ট লেডি শব্দটার সঙ্গে বিরাট এক মর্যাদা জড়িত। আমেরিকার সব চেয়ে ক্ষমতার স্থান হোয়াইট হাউজের এক বাসিন্দাকে বুঝানো হয়। মজার ব্যাপার হলো শুরুর দিকে প্রেসিডেন্টের সহধর্মিনীকে বিশেষ কোনো নামে ডাকা হতো না। প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ওয়াশিংটনের স্ত্রীর পদবী ছিল লেডি ওয়াশিংটন। তাকে ফার্স্ট লেডি ডাকা হতো না।

বিস্তারিত...

করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু; জনমনে নানান প্রশ্ন

সারা দেশে করোনাভাইরাস উপসর্গ জ্বর, শ্বাসকষ্ট, সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত অনেকের মৃত্যু হয়েছে। এদের কারো শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ছিল কিনা তা নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। তবে সতর্কাবস্থায় তাদের দাফন করা হয়েছে। এছাড়া পরীক্ষার জন্য লাশ থেকে স্যাম্পল গ্রহণ করে আইইডিসিআর-এ পাঠানো হয়েছে বলে জানান স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

বিস্তারিত...

চীনে দ্বিতীয় প্রজন্মের করোনা সনাক্ত, উদ্বিগ্ন চিকিৎসকরা

বিপদ যেন পিছু ছাড়ছে না চীনসহ বিশ্ববাসীকে। ভয়ঙ্কর মহামারি করোনা ভাইরাসে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানকে পর্যদস্তু করার পর অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আনা হলেও দ্বিতীয় প্রজেন্মের আরো এক ধরনের করোনা ভাইরাস ধরা পড়েছে চীনে।এবার চীনের গুয়াংডং প্রদেশের রাজধানী গুয়াংজুতে দ্বিতীয় প্রজন্মের করোনাভাইরাস সনাক্ত করেছেন দেশটির করোনা বিশেষজ্ঞরা

বিস্তারিত...

মাত্র ১৫ মিনিটে ৩৫০ টাকায় করোনা শনাক্ত সম্ভব !

ড. বিজন ও তার দলের উদ্ভাবিত পদ্ধতিতে ৩৫০ টাকায় ১৫ মিনিটে করোনা শনাক্ত সম্ভব। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত পদ্ধতিতে মাত্র ৫ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে শনাক্ত করা যাবে করোনা সংক্রমণ হয়েছে কি না। এতে খরচ পড়বে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকার মতো। সরকার যদি এর ওপর ট্যাক্স-ভ্যাট আরোপ না করে তাহলে ২০০ থেকে ২৫০ টাকায় বাজারজাত করতে পারবে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। তবে সবকিছু নির্ভর করছে সরকারের মর্জির ওপরে। মূল্য নির্ধারণ না করে দিলে যে যার যার মতো টাকা নেবে।

বিস্তারিত...

বিশ্বের শীর্ষ ৯ ধনীকে গরীব বানালো করোনা ভাইরাস !

করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ প্রকোপ বিশ্ববাসীর মধ্যে উদ্বেগ তৈরি করেই চলছে। বৈশ্বিক পরিস্থিতি ও স্টক মার্কেটের দরপতনের কারণে শীর্ষ ধনীদের সম্পদের হেরফের ঘটে থাকে। তাদের সম্পদ ও বিনিয়োগের পরিমাণ এত বেশি যে সূচকের সামান্য ওঠানামাই বড় পরিমাণ সম্পদের ক্ষয়-বৃদ্ধি ঘটায়। করোনাভাইরাসের প্রভাবেও সেটিই ঘটেছে। তবে, এটি নিকট অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে অনেক বেশি। এই পরিস্থিতি অবশ্য একেবারেই নতুন-তা বলা যাবে না ব্ল্যাক মানডে: ১৯৮৭ সালের ১৯ অক্টোবর ভয়াবহ এক ধসের মুখে পড়ে বৈশ্বিক পুঁজিবাজার। বিশ্বের বড় শেয়ারবাজারগুলোতেও সেদিন ধস নামে। সেই কথাই স্মরণ করে দিয়েছে বিশ্বের নামকরা সাময়িকী ফোর্বেস। ওইদিন সোমবার…

বিস্তারিত...

কুয়েতে আজানের ভাষায় পরিবর্তন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করতে মসজিদে আজানের ভাষায় পরিবর্তন এনেছে মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম মুসলিম সংখ্যা ঘরিষ্ঠ ও ধনী দেশ কুয়েত। আজানের সময়, ‘নামাজের জন্য এসো’এর পরিবর্তন করে ‘ঘরে বসে নামাজ আদায়ের’ কথা বলা হচ্ছে। দুবাই ভিত্তিক গালফ নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, কুয়েতে এরই মধ্যে শতাধিক ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে দেশটির আওকাফ অ্যান্ড ইসলামিক অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রণালয় শুক্রবারের জুমার নামাজসহ সব ধরনের জামাতে নামাজ আদায় স্থগিত করেছে। আজানের ভাষায় যে পরিবর্তন: দেশটির মুয়াজ্জিনরা আজানে কিছুটা পরিবর্তন এনেছেন। ‘হাইয়া আলাস সালাহ’ (নামাজের জন্য এসো) এর পরিবর্তে ‘আস সালাতু…

বিস্তারিত...

সাজসজ্জার সঙ্গী পেরেক

অফিস ও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের রুম বা ফ্লোর ডেকোরেশন বা সাজসজ্জা করা হালে একটি প্রচলিত ধারায় পরিণত হয়েছে। এই ডেকোরেশনের কাজে সিমেন্টের দেয়ালের সাথে বোর্ড বা কাঠ লাগাতে তারকাটার জুড়িমেলা ভার

বিস্তারিত...

বাইজির মসজিদ; যে মসজিদে নামাজ হয়নি কোনো দিন !

বাইজির মসজিদ মাঝিগাছা

কোন এক অসহায় নারীর করুন আর্তনাদের মিনার হয়ে আজও শতাব্দীর পর শতাব্দী দাড়িয়ে আছে এই কথিত বাইজির মসজিদ। তবে কে এই বাইজির? কেনইবা সে জীবনের শেষে এসে এই মসজিদটি নির্মাণ করে এতটা বিতর্কিত হয়ে গেছেন?

বিস্তারিত...

যে কারণে বারবারই মহামারীর খলনায়ক বাদুর

বাদুর

অধিকাংশ মারাত্মক ভাইরাসের বাহক হিসেবে বারবার বাদুরের নাম উঠে এসেছে। চীনে করোনাভাইরাসের বাহক হিসেবেও শুরুতেই বাদুরের নাম উঠে আসে। এরপর দ্বিতীয় বাহক হিসেবে সাপের কথা বলা হলেও অধিকাংশ গবেষক তা নাকচ করে দেন। গবেষকরা বলছেন চীনাদের উগ্র খাদ্যাভ্যাসের কারণে বন্য পশু থেকে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। সাপ, শুকর, উল্লুক, ব্যাং, গাধা, তেলাপোকার ফ্রাই, ইঁদুর, টিকটিকি সজারুসহ নানা রকম কীটপতঙ্গ ও বাদুরের জুস। এমন কোন পশুই পাওয়া যাবে না যা সেদেশের মানুষ ভক্ষণ করে না। চীনে ঘরে বসে অর্ডার করলেই পাওয়া যায় ১২০ প্রজাতির বন্য পশুর মাংস।

বিস্তারিত...