বাংলাদেশি সিনেমার এক গানের খরচ ২৮ লাখ টাকা  

বাংলাদেশি সিনেমার এক গানের খরচ ২৮ লাখ টাকা  

বছরের বহুল প্রতীক্ষিত পুলিশ অ্যাকশন সাসপেন্স থ্রিলার সিনেমার নাম ‘মিশন এক্সট্রিম’। এ সিনেমার এক গানের জন্য ২৮ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। আসন্ন ঈদুল ফিতরে মুক্তির পাবে সিনেমাটি।

ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে এ সিনেমাটির একটি এক্সক্লুসিভ গান প্রচারণামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে প্রযোজনা সংস্থা কপ ক্রিয়েশন প্রকাশ করতে যাচ্ছে।

২৮ লাখ টাকা খরচে তৈরি ‘জানি তুমি ছিলে’ শিরোনামের গানটি প্রীতম হাসান ও দোলা রহমান কন্ঠ দিয়েছেন। গানের কথা লিখেছেন রাকিব হাসান রাহুল। সুর ও সংগীত করেছেন অদিত রহমান। বড় বাজেটের গানটি চিত্রায়িত হয়েছে দুবাই শহর ও মরু প্রান্তরে।

মিশন এক্সট্রিম চলচ্চিত্রের একটি গান প্রকাশের অনুরোধের কারণে ভালোবাসা দিবসে ছবির সবচেয়ে ব্যয়বহুল রোমান্টিক গানটি প্রকাশ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পরিচালক, প্রযোজক ও লেখক সানী সানোয়ার।

এ গান চিত্রায়ণে বিন্দু পরিমাণ আপস করা হয়নি। গানটির সুর ও সংগীত থেকে শুরু করে সব ক্ষেত্রে দর্শকদের জন্য দুর্দান্ত সব চমক রাখা হয়েছে। দুবাইতে শুটিং করা “জানি তুমি ছিলে” গানটির জন্য ২৮ লাখ টাকা খরচ হয়েছে।

ঢাকা অ্যাটাক ছবির ‘টুপ টাপ’ গানের পেছনেও ১৮ লাখ টাকা খরচ হয়েছিল।‘ঢাকা অ্যাটাক’ সিনেমাতেও মালয়েশিয়ায় চিত্রায়িত ‘টুপ টাপ’ গানে আমাদের খরচ হয়েছিল ১৮ লাখ টাকা। আসলে গানের মান ও সৌন্দর্যের সঙ্গে খরচের একটা সম্পর্ক থাকে।

ঈদে ‘জানি তুমি ছিলে’ গানটি বাড়তি বিনোদন যোগ করবে বলে মনে করছেন নির্মাতা। আপাতত গানের লিরিক্যাল ভিডিওটি প্রকাশ করা হচ্ছে। গানের ভিডিওটি দেখতে আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে গানমোদীদের।

এর আগে গত ডিসেম্বরে ছবির একটি পোস্টার প্রকাশ করে প্রচারণা শুরু হয়। আগামী ঈদুল ফিতরে মুক্তি পেতে যাচ্ছে মিশন এক্সট্রিমের প্রথম খণ্ড। গত বছর ঈদুল ফিতরে মুক্তির কথা থাকলেও বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারী শুরু হওয়ায় পিছিয়ে যেতে হয় প্রযোজনা সংস্থাকে। সানী সানোয়ারের সঙ্গে চলচ্চিত্রটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন ফয়সাল আহমেদ।

‘ঢাকা অ্যাটাক’ টিমের পরবর্তী প্রজেক্ট হিসেবে মিশন এক্সট্রিমের ঘোষণা আসার পর থেকে চারদিকে বেশ সাড়া পড়ে যায়। সানী সানোয়ারের কাহিনী, চিত্রনাট্য ও সংলাপের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত সিনেমাটির শুটিং শুরু হয় ২০১৯ সালের মার্চে।

ঢাকা, গাজীপুর ও দুবাই শহরের নানা লোকেশনে তিন ধাপে ছবির দুই খণ্ডের শুটিং সম্পন্ন হয়। মাইম মাল্টিমিডিয়া ও ঢাকা ডিটেক্টিভ ক্লাব সহযোগী প্রযোজক হিসেবে যুক্ত থেকে চলচ্চিত্রটির দুটি খণ্ড নির্মাণ করছেন।

ছবির প্রথম পর্বে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ, জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী, তাসকিন রহমান, সাদিয়া নাবিলা, সুমিত সেনগুপ্ত, শতাব্দী ওয়াদুদ, রাইসুল ইসলাম আসাদ, ফজলুর রহমান বাবু, ইরেশ যাকের , সুদীপ বিশ্বাস, সৈয়দ আরেফ, মনোজ প্রামাণিক, মাজনুন মিজান, খালেদুর রহমান রুমী, মোহাম্মদ হায়দার আলী, রাশেদ মামুন অপু, ইমরান সওদাগর, আরেফ সৈয়দ, দীপু ইমাম, সুষমা সরকার, লায়লা ইমাম, এহসানুর রহমান, শামস সুমন, ইকরাম, নাজমুস সাকিব প্রমুখ।

সিনেমাটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করা নায়ক আরিফিন শুভ বলেন, করোনায় সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির যত ক্ষতি হয়েছে, তা পূরণে ‘মিশন এক্সট্রিম’বড় ধরনের ভূমিকা রাখবে। এই সিনেমায় কাজ করা ছিল অসাধারণ একটি অভিজ্ঞতা। নিঃসন্দেহ বলা যায়, দর্শকদের জন্য ঈদে দারুণ একটি সিনেমা অপেক্ষা করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *