প্রথমবারের মতো যমজ সন্তানের মা হয়ে তাক লাগালেন ৭৪ বছরের বৃদ্ধা

Iramtoti Mangamma

বৃদ্ধ বয়সে মা। তাও আবার ৭৪ এ। এ ঘটনা রুপ কথা নয় সত্যি। ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে এমন অবাক করার মতো বিষয় ঘটেছে। গত ৬ সেপ্টেম্বর ৭৪ এর এক নারী যমজ কন্যার সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। ভারতের ৭৪ এ মা হওয়ার ঘটনা প্রথমবারের মতো ঘটলো।

ইরামততি মানগামমা – ইরামততি রাজা রাও দম্পত্তি প্রথমবারের মতো মা-বাবা হয়ে বিশ্বকে তাক লাগালেন। রাজা রাওয়ের এখন ৮০ বছর। এ দম্পত্তি ১৯৬২ সালের ২২ মার্চ বিয়ে করেন। দুর্ভাগ্যবশত তাঁদের ঘরে উত্তরসূরি আসেনি। বহু চিকিৎসক ও হাসপাতালে চিকিৎসা করালেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

২০১৮ এ নভেম্বরে এ দম্পত্তি গুন্টূরের অহল্যা নার্সিং হোমে ডাঃ সানাকওয়ালা উমাসকর তাদের চিকিৎসার চ্যালেঞ্জটি নিজের হাতে নেন বলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমকে নিজেই জানান সানাকওয়ালা।

সানাকওয়ালার ভাষায়, এই নারীর শরীরের এর আগে অসুখের কোনো উপসর্গ পাওয়া যায়নি। তার ব্লাড প্রেসার, সুগার কিছুই নেই। জেনেটিক লাইন খুব ভালো। কারডিওলজিস্ট, পালমনোলজিস্টের বিস্তারিত চিকিৎসার পর পরবর্তী ধাপে এগিয়ে যাই। অনেকদিন আগেই এ নারী মেনোপজে গেলেও চিকিৎসার পর পিরিয়ড একমাসের মধ্যেই শুরু হয় তার।

বৃদ্ধ বয়সে মা-বাবা হতে চাওয়া প্রসঙ্গে মানগামমার স্বামী ইরামততি রাজা রাও জানান, সন্তান না থাকায় তারা সামাজিক বাধা পেয়েছেন। সন্তান নেই বলে সমাজের লোকেরা অসম্মান করতো।

তিনি আরো জানান, শুধু মাত্র সন্তান না থাকার কারণে অসহনীয় উপহাস ও ঠাট্রার শিকার হয়েছেন। যুগের পর যুগের প্রাণপণ চেষ্টা করে আসলেও সন্তান আসেনি আমাদের সংসারে। আমাদের সংসারে সন্তান এসেছে। এটি সৃষ্টি কর্তার দয়া।

এতো কিছুর পরেও বৃদ্ধ বয়সে মা হওয়ায় মানগামমান শরীরের সুস্থতা নিয়ে সংশয় রয়েছে। তিনি কী স্বাভাবিক বয়সে মা হওয়ার পরে যেমন থাকবেন তাই হবে নাকি অসুস্থ হয়ে পড়বেন এটা নিয়ে নানান আলোচনা চলছে।

আরো দেখুন

Leave a Comment