দুইয়েও অটুট মুগ্ধতায় পূর্ণ ”বিরুষ্কা”

উপমহাদেশের আলোচিত তারকা জুটি বিরাট কোহলি ও আনুশকা শর্মা। তারকা অঙ্গন এর লোকদের ব্যতিক্রমী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন ভারতের দুই ভুবনের দুই তারকা।

ভারতীয় দুই ভূবনের দুই সুপারস্টার বিরাট কোহলি ও আনুশকা শর্মা ২০১৭ সালের ১১ ডিসেম্বর বিয়ে করেন।

দেখতে দেখতে দুই বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো অটুট তাদের মুগ্ধতা, প্রেম-ভালোবাসায় ঘিরে রেখেছেন একে অপরকে।

বিবাহবার্ষিকীতে একে অন্যকে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করেছেন বিরাট ও আনুশকা দু’জনই।

ক্রিকেটের ফার্স্টলেডির উদ্দেশে বিরাট লিখেছেন, ‘বাস্তব জীবনে ভালোবাসা ব্যতীত আর কিছুই নেই’।

বিরাট কোহলি ও আনুশকা শর্মা

আর ঈশ্বর সারা জীবন কাটানোর জন্য এমন একজনকে আশীর্বাদ হিসেবে আপনার কাছে পাঠান

যে প্রতিটা দিন আপনার মধ্যে একটাই অনুভূতি জাগিয়ে তুলবে তখন কৃতজ্ঞ হতে হয়।’

স্বামী বিরাটের উদ্দেশে আনুশকাও বিশেষ বার্তা শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। উদ্ধৃতি দিয়েছেন দার্শনিক ভিক্টর হুগোকে।

“কাউকে ভালবাসা হল ঈশ্বরের মুখদর্শন- ভিক্টর হুগো। ভালবাসা শুধু একটা অনুভূতি নয়।

তার থেকে অনেক বেশি। এটা একটা চালিকা শক্তি।

পরম সত্যের দিকে নিয়ে যায় এই ভালবাসা। আর আমি খুব ভাগ্যবান যে এমন একজনকে খুঁজে পেয়েছি।”

স্বামীর সঙ্গে ক্রিকেট ভ্রমণে থাকার জন্য ক্রিকেটমহল থেকে বিরাটের ভক্তমহলে বারবার সমালোচিত হতে হয়েছে আনুশকাকে।

মাঠে বিরাটের খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য দায়ী করা হয়েছে আনুশকাকে ।

কখনো মুখ বুজে থেকেছেন ক্রিকেটের ফার্স্টলেডি আবার কখনো বা তার হয়ে যোগ্য জবাব দিতে ব্যাট ধরেছেন স্বামী বিরাট কোহলি।

নিন্দুকের মুখে ছাই দিয়ে হেসে-খেলে খুনসুটিতে ২ বছর পার করেও নট আউট বিরাট-আনুশকার দাম্পত্যের ইনিংস।

নিজেদের কাজের সূত্রে বছরের অধিকাংশ সময়ে একে অন্যের থেকে দূরে থাকলেও যখনই সময় পান একসঙ্গে কাটান।

সেটা দু’জনে মিলে করবা চৌথ পালন করাই হোক, কিংবা একে অন্যের জন্মদিন সেলিব্রেট করা কোন কিছুই বাদ যায় না।

তারকা জুটিদের ক্ষেত্রে সমালোচনা হলেও এই জুটি সমালোচনার ঊর্ধ্বে। নিজের পরিবার এবং কর্মক্ষেত্রকে ঠিক রেখে জীবন সংসার পরিচালনা করছেন এ জুটি। দুজনেরই প্রচণ্ড ব্যস্ততার মধ্যেও ভালোবাসার কোন ঘাটতি মেলেনি তাদের সংসারে। তাই তাদের নিয়ে গর্ববোধ করছেন ভক্তরা এবং পরিবারের সদস্যরা

আরো দেখুন

Leave a Comment