দেশের প্রথম ইংরেজি সিনেমা ‘দ্য গ্রেভ’

দ্য গ্রেভ

চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে ২০১৩ সালে তার অভিষেক হয় মৃত্তিকা মায়া চলচ্চিত্র পরিচালনার মাধ্যমে। এই চলচ্চিত্রের জন্য তিনি এখন পর্যন্ত (২০১৭ সাল) এক বছরে সর্বাধিক পাঁচটি বিভাগে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রদত্ত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।

২০১৫ সালের অনিল বাগচীর একদিন চলচ্চিত্রে আইয়ুব আলী চরিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। বলছি অভিনেতা ও নির্মাতা গাজী রাকায়েতের কথা।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে ইংরেজি চলচ্চিত্র হিসেবে প্রথমবারের মতো সেন্সর ছাড়পত্র পেলো ‘দ্য গ্রেভ’। গাজী রাকায়েত নির্মিত সিনেমাটি ইংরেজি ও বাংলা দুই ভাষায় তৈরি করা হয়েছে।

পরিচালনা ছাড়াও চিত্রনাট্য ও কাহিনীও লিখেছেন তিনি। গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয়ও করেছেন গুণী এ নির্মাতা।

সরকারি অনুদানে নির্মিত ‘দ্য গ্রেভ’ বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষার জন্য আলাদাভাবে শুটিং করা হয়েছে। দুই ভাষার জন্যই সিনেমাটি সেন্সর হয়েছে। কিন্তু বাংলা সিনেমাটি ‘গোর’ নামে রাখা হয়েছে।

সংবাদ মাধ্যম দ্য ডেইলি স্টারের মাধ্যমে জানা যায়, ১৫ জানুয়ারি সেন্সর ছাড়পত্র হাতে পান নির্মাতা গাজী রাকায়েত। ওই দিন সন্ধ্যায় বিএফডিসির মান্না ডিজিটাল অডিটরিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে পরিচালক গাজী রাকায়েত ও চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগরের হাতে সেন্সর ছাড়পত্র তুলে দেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান।

গাজী রাকায়েত ও ফরিদুর রেজা সাগরের হাতে দ্য গ্রেভ সিনেমার সেন্সর ছাড়পত্র

এই সিনেমায় আরও অভিনয় করেছেন দিলারা জামান, মৌসুমী হামিদ, সুষমা সরকার, দীপান্বিতা, শামীমা তুষ্টি ও অর্থা। অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মামুনুর রশীদ ও এসএম মহসীন।

সিনেমা প্রসঙ্গে গাজী রাকায়েতের মত, “আন্তজার্তিকভাবে সিনেমাটি সবাইকে দেখাতেই ইংরেজি ভাষায় করা হয়েছে। আর দেশীয় দর্শকদের জন্য বাংলা ভাষায় ছবিটি বানানো হয়েছে। তবে, দুই ভাষাতেই দর্শকরা ছবিটি দেখতে পারবেন।

দ্য গ্রেভ’ সিনেমার সময়সীমা দুই ঘণ্টা ১২ মিনিট। সিনেমাটির আসল শক্তি হচ্ছে এর গল্প। এটি গল্প নির্ভর সিনেমা হওয়ায় দর্শকদের ভালো লাগবে বলে আশা প্রকাশ করেন রাকায়েত।

‘দ্য গ্রেভ’র শুটিং হয়েছে ঢাকার অদূরে দোহারে। সেখানে পুরোপুরি সেট সাজিয়ে সিনেমাটির শুটিংয়ের কাজ করা হয়েছে। সরকারি অনুদানের এ সিনেমাটিতে যুক্ত হয়েছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম।

দ্য গ্রেভ সিনেমার আরেক দৃশ্য

গাজী রাকায়েত ছয় বছর আগে নির্মাণ করেছিলেন ‘মৃত্তিকা মায়া’ শিরোনামের একটি সিনেমা। সেটি ১৭ ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলো। যা এদেশে একটি রেকর্ড।

গাজী রাকায়েতের ১৯৬৬ সালের ১৫ জুন বাংলাদেশের রাজধানী শহর ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আবদুল আউয়াল গাজী ও মাতা বিলকিস বেগম। তার পড়াশুনার পাঠ শুরু হয় গেন্ডারিয়ায়ায়।

১৯৮৩ সালে গেন্ডারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও ১৯৮৫ সালে নটরডেম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন। ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে স্নাতক সম্পন্ন করেন।

তিনি ১৯৯৫ সালে অভিনেত্রী আফসানা মিমিকে বিয়ে করেন। ১৯৯৬ সালে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। ১৯৯৭ সালে তিনি পরে গাজী নায়রা শাহরিনকে বিয়ে করেন।

আরো দেখুন

Leave a Comment