কাজী নজরুলের ঘোরাঘুরি

কাজী নজরুলের ঘোরাঘুরি

বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের নাম শুনিনি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া আমাদের সমাজে ভাড়। কাজী নজরুলের নাম শুনলেই প্রতিকার কথা চোখের সামনে জ্বলজ্বল করতে থাকে।

অর্থের দিক নজরুল ততটা স্বাবলম্বী ছিল না যতটা জ্ঞান এর দিক দিয়ে স্বাবলম্বী ছিল। সামান্য কিছু লেখালেখি করে বিভিন্ন পত্রিকায় ম্যাগাজিনে ছাপানো পড়ে সেই টাকা দিয়ে শুরু হয়ে যেতো ভ্রমণ বা ঘোরাঘুরি।

এক আনা থেকে ১০ টাকা যাই হাতে আসুক না কেন ঘুরতে বেরিয়ে পড়তেন নজরুল । তার জীবনের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হলো বাউন্ডেলের জীবন কিংবা ভবঘুরে জীবন।

এক জায়গায় দীর্ঘ সময় থাকতে পছন্দ করতেন না জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। সারাদেশের ব্যতিক্রম চিত্র দর্শনই ছিল তার প্রথম শখ।তাই লেখালেখি করে কিছু টাকা আসলেই দেশ ভ্রমণে বের হয়ে যেতেন মিশতেন নানা জাতের মানুষের সঙ্গে।

নজরুলের জীবনের দর্শন ছিল যতই ঘোরাঘুরি করবে ততই জ্ঞান আহরণ করতে পারবে। তিনি বিশ্বাস করতেন, পাঠ্য বইয়ের ছাপানো অক্ষর পড়ে পড়ে মানুষের মনের ভাব কিংবা কষ্ট দুঃখ বুঝা যায় না। তাই তিনি সরাসরি মানুষের আবেগ মনের কষ্ট বুঝতেন না যা পরবর্তীতে তার সাহিত্যে ফুটে উঠেছে।

কলকাতা থেকে শুরু করে ঢাকা সিলেট কুমিল্লা ময়মনসি্হ ২৪ পরগনা মুর্শিদাবাদ এমন কোনো স্থান নেই যেখানে নজরুলের পদচারণা পড়েনি। অবিভক্ত বাংলার প্রায় সব জনপদেই পদার্পণ ছিল নজরুলের।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *